তাহিরপুরে গৃহবধুকে ধর্ষন, ধর্ষক গ্রেপ্তার

প্রকাশিত: ১০ আগস্ট ২০২১, ৮:১৮ অপরাহ্ণ

তাহিরপুর প্রতিনিধিঃ সুনামঞ্জের তাহিরপুরে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ধর্ষনের শিকার গৃহবধূ বাদাঘাট ইউনিয়নের জৈনকের স্ত্রী। রবিবার ভোর রাতে উপজেলার সীমান্তবর্তী লামাশ্রম গ্রামে এই ধর্ষনের ঘটনাটি ঘটেছে।

এ ঘটনায় ধর্ষিতার স্বামী বাদী হয়ে বাদাঘাট ইউনিয়নের লামাশ্রম গ্রামের ধর্ষক সাত সন্তানের জনক মঞ্জুরুল হক কে আসামী করে তাহিরপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন । মামলা দায়েরের পর তাহিরপুর থানা পুলিশের একটি দল অভিযান চালিয়ে উপজেলার সীমান্তবর্তী লামাশ্রম গ্রাম থেকে ধর্ষক মঞ্জুরুল কে গ্রেপ্তার করেছে। গ্রেপ্তারকৃত মঞ্জুরুল হক উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের লামাশ্রম গ্রামের মৃত রিয়াজ উদ্দিনের ছেলে।

পুলিশ ও ভিকটিম সূত্রে জানা গেছে , মহিবুল ইসলাম পেশায় একজন সিএনজি চালক। রবিবার রাত দেড়টার দিকে মোবাইল ফোনে পূর্ব পরিচিত একই ইউনিয়নের জাঙ্গালহাটি গ্রামের হাফিল উদ্দিন কল করে বলে তাকে সুনামগঞ্জ সদর থেকে নিয়ে আসার জন্য। কল পেয়ে সে তার স্ত্রী ও ছোট বোনকে বাড়িতে রেখে হাফিল উদ্দিনকে নিয়ে আসতে সুনামগঞ্জ সদরে যায়।

এইদিকে ভোর রাতে গৃহবধূ প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে ঘর থেকে বাহিরে হলে আগে থেকে উৎপেতে থাকা মঞ্জুরুল হক তাকে ঝাপটে ধরে ঘরের ভিতর নিয়ে মুখে কাপড় দিয়ে বেঁধে জোর পূর্বক ধর্ষন করে পালিয়ে যায়। পরে গৃহবধূ তার স্বামীকে বিষয়টি জানায়।

তাহিরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আব্দুল লতিফ তরফদার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছেন, ভিকটিমকে উদ্ধার করে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ধর্ষকের বিরোদ্ধে থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত ধর্ষককে মঙ্গলবার দুপুরে কোর্ট হাজতে পাঠানো হয়েছে।

জাগোভাটি/প্র সা/১০-০৮-২০২১