দিরাইয়ে নির্বাচনে পরাজয়ের জের দুপক্ষের সংঘর্ষে আহত ৪

প্রকাশিত: ২ জানুয়ারি ২০২২, ৮:০০ অপরাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক:: সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার তাড়ল ইউনিয়নের তাড়ল গ্রামের আওয়ামিলীগ মনোনীত প্রার্থী আহমদ চৌধুরীর পরাজয়ের জের ধরে দু’পক্ষের সংঘর্ষে ৪ আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে । রোববার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার তাড়ল গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে।
জানা যায়, সদ্য সমাপ্ত ৪র্থ ধাপের ইউপি নির্বাচনে দিরাই উপজেলার তাড়ল ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ছিলেন তাড়ল গ্রামের আহমদ চৌধুরী।একই গ্রামের সুফি মিয়া চৌধুরী নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আহমদ চৌধুরীর বিরোধিতা করেন।

গত শনিবার দুপুরে দিরাই বাজারের হাইস্কুল রোডে আহমদ চৌধুরীর ছোট ভাই সুজন চৌধুরীর ও ছুফি মিয়া চৌধুরীর মধ্যে সদ্য সমাপ্ত নির্বাচন নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ছুফি মিয়াকে শারীরিক হেনস্থা করেন সুজন চৌধুরী।অনাখাংকিত এই বিষয়টি নিয়ে দিরাই বাজারসহ তাড়ল গ্রামের সচেতন মহল নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন । সাথে সাথে বিষয়টি মীমাংসার জন্য আহমেদ চৌধুরীর পক্ষ থেকে তাড়ল গ্রামসহ স্থানীয় একাধিক সালীশ ব্যাক্তিত্ব গন ছুফি মিয়ার কাছে ছুটে যান।ভিকটিম ছুফি মিয়া স্থানীয় মীমাংসায় সম্মত না হয়ে ঘটনার রাতে আহমদ চৌধুরীকে প্রধান আসামী করে ৩ জনের বিরুদ্ধে দিরাই থানায় মামলা দায়ের করেন।

গ্রামবাসীর সাথে আলাপকালে জানা যায়,আহমদ চৌধুরী গতকাল শনিবার ঘটিত বিষয়টি মীমাংসার জন্য ছুফি মিয়ার বাড়ী যাওয়ার কালে উভয় পক্ষের লোকজনের মধ্যে উত্তেজনাকর কথা কাটাকাটির জের ধরে সংঘর্ষ বাঁধে। সংঘর্ষে গুলাগুলিতে ৩জন গুলিবিদ্ধসহ ৪ জন আহত হন। আহতরা হলেন, আহমদ চৌধুরীর পক্ষের আমিনুর চৌধুরী (২৬), আলআমিন চৌধুরী (৩৮) ও সুফি মিয়া চৌধুরী (৫৫), তাঁর ছেলে ইদু মিয়া চৌধুরী (৩০)। গুরুতর আহত আমিনুর চৌধুরী ও আলআমিন চৌধুরীকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেছে দিরাই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।
দিরাই থানার ওসি মো. আজিজুর রহমান বলেন, সংঘর্ষের খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে আসি। ঘটনাস্থল থেকে গুলির খোসা উদ্ধার করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে।