দিরাইয়ে শিক্ষকের উপর হামলাঃ শাস্তির দাবীতে শিক্ষকদের কর্ম বিরতি ঘোষনা

প্রকাশিত: ৭ এপ্রিল ২০২২, ৯:১৫ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:সুনামগঞ্জের দিরাই সরকারি কলেজের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি(আইসিটি) বিষয়ের শিক্ষকের উপর হামলা ও ভাংচুরের ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমুরক শাস্তির দাবীতে তিন দিনের কর্মবিরতি ও ক্লাস বর্জনের ঘোষনা দিয়েছে শিক্ষক শিক্ষার্থীবৃন্দ। মঙ্গলবার বেলা সাড়ে১১টায় দিরাই সরকারি কলেজের রাগীব রাবেয়া ভবনে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের উপস্থিতিতে অধ্যক্ষ(ভারপ্রাপ্ত) ধীমান কীর্তুনিয়া এ ঘোষনা দেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, সহকারি অধ্যাপক আ ন ম শোয়েব চৌধুরী,প্রভাষত মোহাম্মদ ফখর উদ্দিন চৌধুরী. রফিকুল ইসলাম তালুকদার, সন্দীপন দাস, কামরুল কবির, অঞ্জন দাস, রুনু রঞ্জন ভৌমিক প্রমুখ।
কলেজে শিক্ষার সুষ্ঠ পরিবেশ বজায় রাখতে সন্ত্রাস ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে উল্লেখ করে উপস্থিত শিক্ষকরা বলেন, সন্ত্রাসীদের কোন দল নেই,আমরা সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেছি, শিক্ষাঙ্গনকে সন্ত্রাস মুক্ত করতে পুলিশ প্রশাসনসহ সকলের সহযোগীতা কামনা করেন শিক্ষকরা।এ ঘটনায় মেহেদী হাসান চৌধুরী ও কলেজ ছাত্রলীগের আহবায়ক দাবীদার এমপি বিরোধী বলয়ের ছাত্রলীগ নেতা চন্ডিপুর গ্রামের আছাব উদ্দিনের ছেলে মারুফ আহমদ জয়কে প্রধান আসামী করে বহিরাগতসহ ১৮ জনের নাম উল্লেখ করে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন হামলার স্বীকার দিরাই সরকারি কলেজের আইসিটি বিষয়ের শিক্ষক মিজানুর রহমান পারভেজ। লিখিত অভিযোগে তিনি উল্লেখ করেন, পুরস্কার বিতরন চলাকালীন সময়ে অতর্কিত সন্ত্রাসী কায়দায় অনুষ্ঠান মঞ্চে উঠতে চাইলে আমি বাধা দিই, তাতে ক্ষিপ্ত হয়ে বিবাদীগণ আমার উপর হামলা চালায়। তিনি বলেন আমাকে হত্যার উদ্যেশ্যে পরিকল্পিতকভাবে এ হামলা করা হয়েছে।
অতিরিক্ত পুলিশ সুপার দিরাই সার্কেল আবু সুফিয়ান বলেন, এ ব্যাপারে আমরা একটা অভিযোগ পেয়েছি, তা মামলা হিসেবে রেকর্ড করা হয়েছে, আসামীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে পুলিশ তৎপর রয়েছে।উল্লেখ্য বিগত শনিবার দিরাই সরকারি কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সপ্তাহের পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠান চলছিল। কলেজ ছাত্রলীগের আহবায়ক দাবীদার বিএ তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী এমপি বিরোধী বলয়ের ছাত্রলীগ নেতা মারুফ আহমদ জয় ও একই বলয়ের মেহেদীসহ বহিরাগত কয়েকজন আইসিটি শিক্ষক পাভেজ রহমানকে লক্ষ্য করে মারধর করে এবং এসময় তারা বেশ কয়েকটি পুরস্কারসহ চেয়ার ভাংচুর করে ত্রাস সৃষ্টি করলে কলেজ প্রাঙ্গনে সাধারন শিক্ষার্থীরা আতংকে হৈ হল্লোড় শুরু করে ।
খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনা স্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্তিতি নিয়ন্ত্রন আনে। কলেজ ছাত্রলীগের আহবায়ক দাবীদার অভিযুক্ত মারুফ আহমাদ জয় ছাত্র লীগের কেউ নয় উল্লেখ করে সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি লিখন আহমদ,সাধারণ সম্পাদক আশিকুর রহমান রিপন, যুগ্ম সম্পাদক জগজ্যোতি রায় জয় জানান, দীর্ঘদিন ধরে দিরাই কলেজ বা উপজেলায় কোন ধরনে অনুমোদিত বৈধ কমিটি নেই, ছাত্রলীগের নাম ভাঙ্গিয়ে কেউ অপকর্ম করলে এর দায় ছাত্রলীগ নেবে না। শিক্ষকের উপর সন্ত্রাসী হামলার নিন্দা জানিয়ে তারা বলেন, ছাত্রলীগের কেউ জড়িত থাকলে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে এবং এর পাশাপাশি আাইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ারও দাবী জানান তারা।