তাহিরপুরে স্বাক্ষর জালিয়াতি মামলায় শ্রমিকলীগ নেতা কারাগারে

প্রকাশিত: ১৩ এপ্রিল ২০২৩, ৬:২১ অপরাহ্ণ

তাহিরপুর  প্রতিনিধি: টেকারঘাট কয়লা খনি প্রকল্পের ‘বিসিআইসি’র ভূয়া সীল মোহর তৈরী ও ভুয়া চুক্তি জালিয়াতির মামলায় উপজেলা শ্রমিকলীগের সদস্য সচিব মো. কুদ্দুস মিয়াকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। কুদ্দুস তাহিরপুর উপজেলা বড়দল দক্ষিণ ইউনিয়নের মাটিকাটা গ্রামের মৃত আ. ছোবহান মিয়ার ছেলে,‘মেসার্স স্বর্না এন্টারপ্রাইজ ও বাণিজ্য কেন্দ্র বাদাঘাট বাজারের মক্কা টাওয়ারের স্বত্বাধিকারী।’
বুধবার (১২এপ্রিল) দুপুরে চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মো. রোকন উদ্দিনের আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করলে নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ করা হয়।’
জালিয়াতি মামলা সুত্রে জানাগেছে, জেলার ছাতক সিমেন্ট কোম্পানী লিমিটেড এর তাহিরপুর উপজেলার বড়ছড়া বিসিআইসি’র পরিত্যাক্ত ২০ একর ভূমি কয়লা স্তুপ করণের লক্ষ্যে বিধি মোতাবেক টেন্ডার ডাকা হলে সর্বোচ্চ দরদাতা হিসেবে দুই বছর মেয়াদের জন্য ইজারা পান মেসার্স সোহেল ট্রেডার্সের স্বত্বাধিকারী হাবিবুর রহমা।

এর পর মেসার্স স্বর্না এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী মো. কুদ্দুস মিয়া ভুয়া কাগজ তৈরি করে পরিচালক (প্রশাসন) বিসিআই’সি ওয়াহিদুজ্জুামানের স্বাক্ষর জাল করে নিজেকে ইজারাদার সাজিয়ে বিসিআইসির ভুমি থেকে ইজারাদার সোহেলকে উচ্ছেদের জন্য চাপ দিলে ইজারাদার ছাতক সিমেন্ট কোম্পানী লিমিটেড এর কাছে এর সমাধান চাইলে তারা ঢাকা অফিসে যোগাযোগ করেন।
পরে তদন্তে বেরিয়ে আসে বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশন-বিসিআইসি’র ভূয়া সীল মোহর তৈরী করে ভুয়া চুক্তি সাজায় কুদ্দুস মিয়া। কদ্দুস কে ইজারা দেয়া হয়েছে এমন কোনো কাগজ নেই ঢাকা অফিসে।
এমন তথ্য বেড়িয়ে আসার পর সুনামগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত মামলা দায়ের করেন ইজারাদার সোহেল। জালিয়াতির অভিযোগটি সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত আমলে নিয়ে ছাতক সিমেন্ট কোম্পানী লিমিটেডকে তদন্ত সাপেক্ষে প্রতিবেদনের নির্দেশ দেন। পরে ছাতক সিমেন্ট কোম্পানী ঘটনার সত্যতা পেয়ে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের সুপারিশ করলে আদালত আসামীর বিরুদ্ধে সমন জারি করে। আদালতের সমন পেয়ে কুদ্দুস হাইকোর্ট থেকে ৬ সপ্তাহের জামিন নেন। ঐ মামলায় তিনি জামিনে থাকলেও বুধবার (১২এপ্রিল) আদালতে হাজির হয়ে পুনরায় জামিনের আবেদন করলে আদালত জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।
বাদী পক্ষের আইনজীবী এডভোকেট নুরে আলম ছিদ্দিকী উজ্জ্বল জানান, জালিয়াতি মামলার আসামি কুদ্দুস মিয়াকে আদালতে উপস্থিত হয়ে জামিনের আবেদন করলে বিজ্ঞ বিচারক তা খারিজ করে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন।