ছাতকে শোক দিবস উপলক্ষে কৃষক লীগের আলোচনা সভা

প্রকাশিত: ৫ আগস্ট ২০২৩, ৩:২৪ অপরাহ্ণ

ছাতক প্রতিনিধিঃ ছাতকে উপজেলা কৃষক লীগের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার (আগষ্ট) বিকেলে উপজেলার জাউয়া বাজার ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্সের হলরুমে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা কৃষক লীগের আহবায়ক ও ভাতগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান মাস্টার আওলাদ হোসেনের সভাপতিত্বে ও চরমহল্লাহ ইউনিয়ন ইউপি সদস্য অজিত দাসের পরিচালনায় অনুষ্টিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, উপজেলা কৃষক লীগের যুগ্ম আহবায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা মকবুল হোসেন, যুগ্ম আহবায়ক আঙ্গুর মেম্বার, আলহাজ্ব এমএ আব্দুল কাদির, আব্দুল জব্বার খোকন, আব্দুল আউয়াল মেম্বার, মাস্টার আওলাদ হোসেন প্রমূখ।
এ সময় উপজেলা কৃষক লীগের যুগ্ম আহবায়ক ও নোয়ারাই ইউপি সাবেক চেয়ারম্যান ছমরু মিয়া, সদস্য কদর মিয়া, আরজু মিয়া, নূরুল আমিন, শফিকুল ইসলাম, জয়নাল আবেদীন, আজিজুর রহমান, ইলিয়াস আলী, সৈয়দ রুহুল আমিন, ইব্রাহিম আলী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন, আব্দুল জব্বার খোকন এবং গীতা পাঠ করেন, ইউপি সদস্য অজিত দাস। সভায় বক্তারা বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ভোর রাতে সেনাবাহিনীর কিছুসংখ্যক বিপথগামী সদস্য ধানমন্ডির বাসভবনে বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করে। ঘাতকরা শুধু বঙ্গবন্ধুকেই হত্যা করেনি, তাদের হাতে একে একে প্রাণ হারিয়েছেন বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিনী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব , বঙ্গবন্ধুর সন্তান শেখ কামাল, শেখ জামাল ও শিশু শেখ রাসেলসহ পুত্রবধু সুলতানা কামাল ও রোজি জামাল। পৃথিবীর এই জঘন্যতম হত্যাকান্ড থেকে বাঁচতে পারেননি বঙ্গবন্ধুর অনুজ শেখ নাসের, ভগ্নিপতি আবদুর রব সেরনিয়াবাত।
মুলত, ‘৭৫ এর ১৫ আগস্ট থেকেই বাংলাদেশে এক বিপরীত ধারার যাত্রা শুরু হয়। বেসামরিক সরকারকে উৎখাত করে সামরিক শাসনের অনাচারি ইতিহাস রচিত হতে থাকে।